ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪ 

অ্যান্ড্রয়েড’র কাছে ধরাশায়ী ‘আই ফোন’

নিজস্ব প্রতিবেদক

প্রকাশিত: ২১:৪৮, ২৮ মার্চ ২০২৪

শেয়ার

অ্যান্ড্রয়েড’র কাছে ধরাশায়ী ‘আই ফোন’

বর্তমান সময়ে স্মার্টফোন বাজারে সবচেয়ে জনপ্রিয় যে অপারেটিং সিস্টেমগুলি রয়েছে তার মধ্যে সর্বাধিক আলোচিত আইওএস এবং অ্যান্ড্রয়েড। তাই তো এদের মধ্যে প্রতিযোগিতা লেগেই থাকে। বেশকিছু অ্যান্ড্রয়েড ব্র্যান্ড- অ্যাপেল আই-ফোনের সঙ্গে সর্বক্ষণিক প্রতিযোগিতা করে আসছে। তবে বিজয়ের শিরোপা সবসময় ছিল আইফোনের ঝুড়িতে। ইউজার এক্সপেরিয়েন্স এবং পারফরম্যান্স দিক থেকে সবসময় এগিয়ে ‘অ্যাপল’।

তবে সেই চিরচেনা বিজয়ীর ট্যাগ এবার হারাতে চলেছে আই-ফোন। সম্প্রতি অ্যান্ড্রয়েডে ব্যবহৃত সর্বাধিক জনপ্রিয় (এসওসি) চিপসেট কোম্পানি কোয়ালকম তাদের নতুন একটি স্মার্টফোন (সিপিইউ) বাজারে এনেছে। সেটি নিয়েই চারিদিকে এত হইচই। তিন নেনোমিটার আর্কিটেকচারে নির্মিত কোয়ালকম স্ন্যাপড্রাগন আট জেনারেশন ফোর-এর এই প্রসেসর হারিয়ে দিবে অ্যাপলের আইফোনকে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এর আগে কোয়ালকম অ্যাপলের বায়োনিক-এর সাথে যে প্রতিযোগিতা করেছে সেখানে অল্পের জন্য হেরেছে কোয়ালকম। তবে সেই প্রতিযোগিতা অসম ছিল। যেখানে বায়োনিক ছিল তিন নেনোমিটার আর্কিটেকচারে নির্মিত এবং কোয়ালকম ছিল চার নেনোমিটারে নির্মিত। তাই কোয়ালকমের হার স্বাভাবিক ছিল। তবে ভালো ব্যাপার হলো আগের প্রতিযোগিতায় অল্পের জন্য হেরেছে কোয়ালকম। তাই কোয়ালকম’র তিন নেনোমিটার আর্কিটেকচারের প্রোসেসর অ্যাপেলের বায়নিককে হারিয়ে দিবে নিমিষেই।

তারা আরো বলেন, একটি পরিক্ষায় দেখা গেছে, কোয়ালকম প্রোসেসর যেখানে সিঙ্গেল কোরে বেঞ্চমার্ক স্কোর করছে ৩৫০০, সেখানে অ্যাপল বায়োনিকের স্কোর ৩৩০০ এবং মাল্টি কোরে ১০৬২৮ আর অ্যাপেলের ৮২০০। তাই বিশেষজ্ঞদের মতে, স্ন্যাপড্রাগন ৮ জেনারেশন ৪ প্রোসেসর নিমিষেই হারিয়ে দিবে অ্যাপলের বায়োনিক এ১৮ প্রো-প্রোসেসরটিকে।

কোয়ালকমের এই নতুন প্রোসেসর দিয়েই বাজারে আসছে স্যামস্যাং এস ২৫ মডেলের ফোন। তাই বলাবাহুল্য, এবার স্যামসং-এর অ্যান্ড্রয়েড হারাতে পারবে অ্যাপলের আই-ফোনকে।

দ্য নিউজ/ এসএইচ/ এনজি

live pharmacy
umchltd

সম্পর্কিত বিষয়: