ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪ 

শরীয়তপুরে জেলের জালে উঠলো দিনমজুরের লাশ

শরীয়তপুর সংবাদদাতা

প্রকাশিত: ২০:৫৩, ৩ মার্চ ২০২৪

শেয়ার

শরীয়তপুরে জেলের জালে উঠলো দিনমজুরের লাশ

শরীয়তপুরের জাজিরার কাজীরহাট এলাকায় পদ্মার শাখা নদীতে জেলের জালে উঠে এলো এক লাশ।নিহতের নাম জামাল শিকারী (২৬)। পেশায় তিনি দিনমজুর।

রবিবার (৩ মার্চ) দুপুর দুইটার দিকে উপজেলার বড়কান্দি ইউনিয়নের কীর্তিনাশা নদীতে একদল ভাসমান জেলের জালে আটকায় লাশটি। পরে তারা পুলিশকে দেয়।

জামাল শিকারীর পরিবার জানায়, তিনি নড়িয়ার ডগ্রী এলাকার মৃত রতন শিকারীর ছেলে। পেশায় একজন দিনমজুর। বাবা-মা মারা যাওয়ার পরে তিনি একেক সময় একেক জায়গায় অবস্থান করে দিনমজুর হিসেবে কাজ করতেন। গত কয়েক বছর যাবত তিনি কাজিরহাটের ডুবিসায়বরে থেকে আশেপাশের এলাকায় শ্রমিকের কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করতেন। 

রবিবার দুপুর দুইটার সময় একদল ভাসমান জেলে কাজিরহাট কীর্তিনাশা নদীতে মাছ ধরার জন্য জাল ফেলে। হঠাৎ তাদের জালে জামাল শিকারীর লাশ ভেসে ওঠে। লাশ ভেসে উঠেছে এমন খবরে আশেপাশের লোকজন নদীর পাড়ে ভিড় জমায়। বিষয়টি নৌ-পুলিশকে অবহিত করলে তারা ঘটনাস্থলে এসে লাশটি উদ্ধার করে এবং শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠান।

জামাল শিকারীর ভাই কামাল শিকারীর দাবি, তার ভাই জামাল শিকারিকে হত্যা করে পানিতে ভাসিয়ে দেওয়া হয়েছে। ভাইয়ের হত্যাকারীদের খুঁজে বের করে শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তিনি। 

জামালের ভাবী করিমন বেগম বলেন, “গতকাল রাতেও আমার দেবর বাড়িতে এসে ভাত খেয়ে গেছে। আমি রাত নয়টার দিকে শুনেছি তার সাথে কারো মারামারি হয়েছে। আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে তাঁকে খোঁজাখুঁজি করে পাইনি। তখন থেকেই জামাল নিখোঁজ ছিলেন। আমার দেবরকে কেউ মেরে নদীতে ফেলে গেছে। আমি পুলিশের কাছে দোষীদের খুঁজে শাস্তি দেওয়ার দাবি জানাই”।

মাঝিরঘাট নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (আইসি) ইন্সপেক্টর মোঃ জসিম উদ্দিন জানান, “কাজীরহাট এলাকার নদীতে একজনের মরদেহ ভেসে ওঠার সংবাদ পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে এসে লাশটি উদ্ধার করি। মরদেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। কেউ যদি অভিযোগ করেন, তাহলে আইনি ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে”।

দ্য নিউজ/ এনজি

live pharmacy
umchltd

সম্পর্কিত বিষয়: