ঢাকা বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪ 

বিলাসপুরে বোমার আঘাতে নাড়ি-ভুড়ি বের হওয়া সেই যুবকের মৃত্যু

শরীয়তপুর সংবাদদাতা

প্রকাশিত: ২০:৪১, ২ এপ্রিল ২০২৪

আপডেট: ২০:৪১, ২ এপ্রিল ২০২৪

শেয়ার

বিলাসপুরে বোমার আঘাতে নাড়ি-ভুড়ি বের হওয়া সেই যুবকের মৃত্যু

প্রায় ৫দিন চিকিৎসাধীন থাকার পরে অবশেষে মারা গেছেন  বিলাসপুরের সংঘর্ষের ঘটনায় বোমের আঘাতে নাড়ি-ভুড়ি বের হয়ে যাওয়া সজিব মুন্সি (২৫)। মঙ্গলবার রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সজিব মুন্সি মারা যান বলে জানায় তার পরিবার।

 

নিহত সজিব মুন্সির পরিবার সূত্রে জানা যায়, টানা ৫ দিন চিকিৎসাধীন থাকা অবস্থায় সজিবের শারিরীক অবস্থা ভালো-মন্দের মধ্য দিয়েই যায়। তবে গতকাল হঠাৎ সজিবের অবস্থা ক্রমশই খারাপ হতে থাকলে রাতে তাকে আইসিইউতে নেয়া হয়। পরে মঙ্গলবার ভোর রাতের দিকে সজিব মুন্সি মারা যান। এর আগের দিন সজিব মুন্সি তার নিজস্ব ফেসবুক প্রোফাইলে বেশি অসুস্থতার কথা জানিয়ে দোয়া চেয়ে একটি পোস্ট করেছিলেন।

 

উল্লেখ্য, প্রায় দুই বছর মোটামুটি শান্ত থাকার পর ফের উত্তপ্ত হয়ে ওঠে শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার বিলাসপুর। যার ফলে গত ২৮ মার্চ রাত আনুমানিক ৯টার দিকে দুই পক্ষের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় বিলাসপুর ইউনিয়নের মিয়াচাঁন মুন্সী কান্দি এলাকার মোহাম্মদ আলী মুন্সির ছেলে সজিব মুন্সির হাতবোমার আঘাতে পেটের নাড়ি-ভুড়ি বেরিয়ে যায়।

 

পরে তাকে উদ্ধার করে জাজিরা উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে মুমূর্ষ অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত আহত সজিব মুন্সি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন বলে জানা যায়। সজিব মুন্সি আহত হওয়ার ৫ দিন পেরোলেও ওই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি। তবে পুলিশ বলছে, একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হবে।

 

জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান বিলাসপুরের পরিবেশ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেন, সজিব মুন্সি মারা যাওয়ার পর এখনও পর্যন্ত কোন ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। তবে যেকোনো অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে আমরা অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করে রেখেছি। সুতরাং প্রতিপক্ষের বাড়িতে কোন ধরনের লুটতরাজ বা ভাংচুরের সুযোগ নেই। সজিব মুন্সির মৃত্যুতে মামলা হলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

 

live pharmacy
umchltd